ওসমানীনগরের বিশিষ্ট ব্যক্তিদের নিয়ে অপপ্রচার, থানায় ৮ লিখিত অভিযোগ

36
এমদাদুর রহমান খান(৮৩৭)
ওসমানীনগর সিলেট প্রতিনিধিঃ
সিলেটের ওসমানীনগরে বিভিন্ন ব্যক্তিকে নিয়ে ফেসবুকে আপত্তিকর ও নোংরা পোস্ট দিয়ে বিভ্রান্তি ছড়ানোর অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ নিয়ে গত কিছুদিন ধরে এলাকায় ক্ষোভ ও হতাশা বিরাজ করছে। এ ঘটনায় ইতোমধ্যে ওসমানীনগর থানায় ৮টি অভিযোগ জমা পড়েছে।
জানা যায়, গত কিছুদিন ধরে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে বিনয় ধর (https://www.facebook.com/binay.dhar.184) নামের একটি আইডি থেকে উপজেলার সনাতন ধর্মাবলম্বী প্রতিষ্ঠিত ব্যক্তিদের ছবি দিয়ে ধারবাহিকভাবে নোংরা মন্তব্য করা হচ্ছে। এতে এলাকার বিভিন্ন মহলে চাপা ক্ষোভ দেখা দেয়। আইডিতে থাকা ছবিতে এলাকার কারও মিল না থাকায় এটি ফেক আইডি বিবেচনা করে চরম পারস্পরিক অবিশ্বাস ও সন্দেহ দেখা দিয়েছে।এদিকে গত রবিবার (৭ ফেব্রুয়ারি) রাতে একই আইডি থেকে একটি পোস্টে বিনয় ধর নিজেকে নির্দোষ দাবি করে এ ঘটনার সঙ্গে তাজপুর বাজারের ব্যবসায়ী চয়ন পালের সম্পৃক্ততার কথা জানান। তিনি ফেসবুক ম্যাসেঞ্জারে চয়ন পালের সঙ্গে তার এ সংক্রান্ত আলাপচারিতার স্ক্রিনশটসহ ‘বিশ্বাসঘাতক চয়ন পাল’ শিরোনামে একটি পোস্ট দেন। এতে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের ক্ষোভ প্রকাশ্যে ছড়িয়ে পড়ে। তারা রবিবার দিবাগত মধ্যরাতে ওসমানীনগর থানায় হাজির হয়ে এ ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা নিতে প্রশাসনের প্রতি আহ্বান জানান।
নিজের উপর আনিত অভিযোগ অস্বীকার করে চয়ন পাল বলেন, ‘আমাকে সামাজিকভাবে হেয়প্রতিপন্ন করতে বিনয় ধর নামের ফেসবুক আইডি থেকে আমায় জড়িয়ে বিভিন্নজনের নামে কুৎসা ছড়ানো হচ্ছে। এতে আমি কোনোভাবেই জড়িত নই। সমাজের সম্মানিত ব্যক্তিত্বদের মান-সম্মান ভূলুন্ঠিত করার এই হীন অপতৎপরতার নিন্দা জানাচ্ছি। আমি এ বিষয়ে প্রশাসন বরাবরে লিখিত অভিযোগ দেওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছি।’
স্থানীয় ব্যবসায়ী নিধীর সূত্রধর বলেন, ‘ফেসবুকে আমাদের বিরুদ্ধে যে অপপ্রচার চালানো হচ্ছে তা নিন্দনীয় ও বর্জনীয়। প্রশাসন থেকে ওই আইডির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিলেই প্রকৃত সত্য বেরিয়ে আসবে। আমরা চাই এ ঘটনার নেপথ্যে যারা তাদের পরিচয়ও উদঘাটিত হোক। আমি এ ব্যাপারে থানায় অভিযোগ দিয়েছি।’