প্রথম টি-টোয়েন্টিতে ৬৬ রানে হারলো বাংলাদেশ

2

হ্যামিল্টনে ২১১ রানের বড় টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে নিউজিল্যান্ডের বোলারদের সামনে দাঁড়াতেই পারলো না বাংলাদেশ। নাঈম, আফিফ ও সাইফ কিছুটা প্রতিরোধ গড়লেও বাংলাদেশ হেরেছে ৬৬ রানে।

নাঈম ১৮ বলে ২৭ রান করে আউট হয়ে ফিরেন। আফিফ হোসেন করেছেন ৩৩ বলে ৪৫ রান। আফিফের সঙ্গে ভালোই সঙ্গ দিয়েছেন মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন। তিনি করেছেন ৩৪ বলে ৩৪ রান। আফিফ ও সাইফের ব্যাটিংয়ে ভর করে বাংলাদেশের সংগ্রহ দাঁড়ায় ৮ উইকেট হারিয়ে ১৪৪ রান।

নিউজিল্যান্ডের ইশ সোধি ৪, লকি ফার্গুসন ২টি, টিম সাউদি ও হামিশ বেনেট ১টি করে উইকেট নেন।

প্রখমে ব্যাট করতে নেমে ডেভন কনওয়ের ঝড়ো ইনিংসের পাশাপাশি মার্টিন গাপটিল, গ্লেন ফিলিপস, উইল ইয়ংয়ের ব্যাটিং দলকে ভালো অবস্থায় এনে দেয়। নির্ধারিত ২০ ওভার শেষে নিউজিল্যান্ডের সংগ্রহ দাড়ায় ৩ উইকেট হারিয়ে ২১০ রান।

অল্পের জন্য সেঞ্চুরি হাতছাড়া করেছেন কনওয়ে। তিনি ৫২ বলে ৯২ রান করে অপরাজিত থাকেন। এছাড়া মার্টিন গাপটিল ২৭ বলে ৩৫, ইয়ং ৩০ বলে ৫৩ রান করেন। বাংলাদেশের পক্ষে নাসুম আহমেদ ২টি, মেহেদী হাসান ১টি উইকেট নেন।

হ্যামিল্টনের সেডন পার্কে টস জিতে ব্যাটিং নেন নিউজিল্যান্ড অধিনায়ক টিম সাউদি। বাংলাদেশ অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ জানালেন, টস জিতলে তিনি বোলিংই নিতেন। উইকেটে ঘাসের ছোঁয়া তেমন একটা নেই। বরাবরই বড় রানের উইকেট বলে পরিচিত এটি। উইকেট তার কাছে খানিকটা শুষ্ক বলে মনে হচ্ছে।

এর আগে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে স্বাগতিকদের সামনে দাঁড়াতেই পারেনি বাংলাদেশ। তবে শিক্ষা অর্জন করেছে বলে জানালেন মাহমুদউল্লাহ। টি-টোয়েন্টি সিরিজ শুরুর আগের দিন অধিনায়ক ভিডিও বার্তায় বললেন, ভুল থেকে শিক্ষা নিয়ে অপ্রথাগত কিছু করতে হবে।

মাহমুদউল্লাহ বলেন, যে ভুলগুলি আমরা করেছি (ওয়ানডে সিরিজে), সেগুলি মাথায় রাখতে হবে। যেন আমরা সেখান থেকে শিখতে পারি। এবং ওই ফল যেন আমাদের এখানে প্রভাব ফেলতে না পারে, সেটা খেয়াল রাখতে হবে।’