কিশোরগঞ্জে হাওরের প্রত্যন্ত অঞ্চলে গর্ভবতী মায়েদের ঘরে ঘরে ঔষধ পৌঁছে দেয়ার উদ্যোগ

25
আইডি নংঃ ৯৯৬মোঃ আরিফুল ইসলাম কিশোরগঞ্জ জেলা, প্রতিনিধি।
কিশোরগঞ্জ জেলার দুর্গম হাওর উপজেলা অষ্টগ্রাম। এ উপজেলায় মোট ৮টি ইউনিয়ন রয়েছে। যার মধ্যে জনসংখ্যা প্রায় দুই লাখ। উপজেলার ৮টি ইউনিয়নের মধ্যে আব্দুল্লাপুর, আদমপুর ও কলমা এই ৩টি ইউনিয়ন প্রত্যন্ত হওয়ায় উপজেলা সদর থেকে যাতায়াত ব্যবস্থা দুর্গম।
এই ইউনিয়নগুলো থেকে সদরে আসতে সময় লাগে ৩ ঘন্টা। এ কারণে সেসব অঞ্চলের গর্ভবতী মায়েরা প্রাথমিক যেসব চিকিৎসা প্রয়োজন তা সঠিকভাবে পাচ্ছেন না।
প্রত্যন্ত এসব এলাকার প্রত্যেক গর্ভবতী মায়েদের পুষ্টির কথা চিন্তা করে গর্ভবতী মায়েদের ঘরে ঘরে ঔষধ পৌঁছে দেয়ার উদ্যোগ নিয়েছে অষ্টগ্রাম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স।
নিরাপদ মাতৃত্ব দিবস উপলক্ষে বৃহস্পতিবার (২৭ মে) আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে এ উদ্যোগের কথা জানানো হয়। সকাল ১০টায় উপজেলার সোনাই দিঘির পাড় কমিউনিটি ক্লিনিকে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।
উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. বুলবুল আহমেদ এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অষ্টগ্রাম উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম জেমস। বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রফিকুল আলম।
অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, অষ্টগ্রাম উপজেলা সদর থেকে দূরবর্তী ৩টি ইউনিয়নে যাতায়াত করতে তিন ঘন্টার মত সময় লাগে। আর এসব দুর্গম এলাকায় অনেক গর্ভবতী মা রয়েছে, যাদের চিকিৎসা নিতে হলে সদরে আসতে হয়। এতে তাদের অনেক কষ্ট করতে হয়।
নিরাপদ মাতৃত্ব দিবসে এসব মায়েদের কথা চিন্তা করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ২ হাজার ৯২ জন গর্ভবতী মায়েদের তিন মাসের আয়রণ, ক্যালসিয়াম, ভিটামিন, ওমিপ্রাজল ও প্যারাসিটামল ঔষধ ঘরে ঘরে পৌঁছে দেওয়ার উদ্যোগ নিয়েছে।
এ উদ্যোগ বাস্তবায়নের জন্য ২০ জন স্বাস্থ্য সহকারী, ১০৩ জন এম.এস.ভি ও ১৯ জন সি.এইচ.সি.পি কে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। আগামী ২৭ আগস্ট থেকে কার্যক্রমটি শুরু হবে।
বক্তারা আরো বলেন, কিশোরগঞ্জ-৪ (ইটনা-মিঠামইন-অষ্টগ্রাম ) আসনের সংসদ সদস্য রেজওয়ান আহাম্মদ তৌফিক ব্যক্তিগতভাবে এই কার্যক্রম সফল করার জন্য নৌকা ও যানবাহন এর ব্যবস্থা করে দিয়েছেন। আশা করি, এ সকল ঔষধ সেবনকারী গর্ভবতী মায়েরা পুষ্টিহীনতা থেকে রক্ষা পাবেন এবং সুস্থ্য সবল শিশু জন্ম দিবেন।