বৃষ্টির পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা না থাকার কারণে রাস্তার বেহাল অবস্থা

13
চট্টগ্রাম কর্ণফুলী প্রতিনিধি: কর্ণফুলী উপজেলা ২নং বরউঠান ইউনিয়ন এর মধ্য পূর্ব শাহমীর পুর ৫নং ওয়াট সংলগ্ন ,সড়কে পানি নিষ্কাশন ব্যবস্থা না থাকায় অল্পদিনে ভেঙ্গে পড়ছে সড়ক। আর সড়ক উন্নয়নে মাটির কাজ করার পর পর মাটি শক্ত হওয়ার আগেই ইট বসানোর কাজ করাতে বেশিদিন স্থায়ী হচ্ছে না। এছাড়া কাজের কম তদারকি করা, বর্ষায় বৃষ্টির পানিতে কাজ করা, দীর্ঘ সময় কাজ শুরু না করে ফেলে রাখা।
এসব গুরুত্তপূর্ণ সড়কের বেহাল অবস্থার ফলে সাধারণ জনগণের ভোগান্তির শেষ হচ্ছে না। সড়ক সংস্কার কাজ করার সময় বর্তমানে যে অবস্থায় আছে তা থেকে কমপক্ষে ১ ফুট উঁচুতে কাজ করতে হবে, না হয় দুপাশে পানি জমে অল্পদিনে নষ্ট হয়ে যাবে। কারন আজ থেকে প্রাই দুই বছর আগে থেকে বলা হচ্ছে যে রাস্তার টার কাজ চলতেছে এবং চলোমান কিন্তু এখনো পযন্ত কাজটি যথা সময়ে করা হচ্ছে না।
কেনো সেইটা প্রশ্ন থেকে গেলো বারবার প্রতিসূতি দিয়ে যাচ্ছে কিন্তু কাজে কাজ কিছু করতেছে না, তাহলে এই রাস্তার টার মধ্যে ইট চিলো কিন্তু সেই ইট গুলো তুলে কনকিট করা হয়ছিলো, তার মধ্যে আবার সেই ইটের কনকিট গুলো দিয়ে পিলার করা হয়ছিলো কেনো করা হয়ছিলো জানে সেই গুলো নাকি বল্লির মতো করে পুকুরে পাশে রাস্তা না ভাঙ্গার জন্য দেওয়ার কথা চিলো সেই গুলো রাস্তার পাশে দেবে দূরের কথা সেগুলো নিয়ে গেয়েছে।
যে সাতকানিয়াই তাহলে আমাদের রাস্তার ইট গুরো কনকিট করছিলো .যে আমাদের রাস্তার পাশে পুকুর আছে সেই খানে পিলার বা বল্লি করে দেওয়ার জন্য তাহলে কেনো বল্লি গুলো সাতকানিয়াই নেওয়া হয়েছে আর এখানে কেনো আমাদের কে পানির মধ্যে এই ভাবে হাটতে হচ্ছে তাই আমাদের সাধারন জনগণের প্রশ্ন? কর্ণফুলী উপজেলার পরিষদের বরাবর আকুল আবেদন কোন ঠিকাদার এই রাস্তার কাজটা নিয়েছে আর কেনো বা এই রাস্তার কাজ টা যথা সময়ে করে দিতেছে না।
এবং সেই ঠিকাদার বা কন্ট্রার কে ডেকে জিঙগাসা করা উচিত বলে মনে করি তা না হলে এরা বেশি সুযোগ পেয়ে যাচ্ছে তাই যথা সময়ে মধ্যে যেনো কাজ শেষ করে সেই ব্যবস্তা গ্রহণ করা হোক যদি সেই ব্যবস্তা না নাওয়া হয় তাহলে আমাদের কে আগামী দিন গুলো অতি বয়াবহ হয়ে দাড়াবে কারন এখন অলপ্পেয়ে বৃষ্টির পানিতে তলিয়ে যাচ্ছে এই রাস্তাটা আর জনোদূরবুক সৃষ্টি হয়ে পড়তেছে কারন বরা বর্ষা মৌসুমে রাস্তাটা বৃষ্টির পানিতে তল্লিয়ে যাই তো সেই খানে চলা পেরা এবং হাটা চলা খুবেই কষ্ট কর হয়ে পড়তেছে সেই সাতে আগামী দিন গুলোতে অনেক বাড়ি ঘর তলিয়ে যাবে।
এবং সেই সাতে তল্লিয়ে যাবে সিয়ান বাড়ী, উজিরখান চৌধুরী বাড়ী,আর সেই সাতে তল্লিয়ে যাবে বিলের মধ্যে যে সব ঘর বাড়ী গুলো আছে সেই গুলো সহ একসাতে তল্লিয়ে যাবে তার জন্য রাস্তার কাজের পাশা পাশি যেনো পানি নিষ্কাশন ব্যবস্তা গ্রহণ করা হয় আশা করি পূর্র শাহমীর পুর বাদামতলের পশ্চিম পাশে ৫নং ওয়াটের জনসাধারন কথা যথাযথ মৌলাইন করা হোক. ? কর্ণফুলী উপজেলা দায়িত্ব থেকে মৌসুমে বৃষ্টির পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা না থাকার কারণে রাস্তাটিকে খুব দ্রুত ব্যাবস্থা গ্রহণের অনুরোধ করছে ভুক্তভোগী ব্যাবসায়ী ও পূর্র শাহমীর পুর বাদামতলের পশ্চিম পাশে ৫নং ওয়াটের জনসাধারন জনগণ ।