“গোবিন্দগঞ্জে দুটি পশুর হাট বসতে বাঁধা দিয়েছে প্রশাসন

6
গাইবান্ধা রিপোর্টার (৯৭৮)ঃ-গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার মহিমাগঞ্জে সর্বাত্বক লকডাউনের বিধিনিষেধ উপেক্ষা করে পশুর হাট বসেছিল, মঙ্গলবার বেলা ৪টার দিকে উপজেলা প্রশাসনের হস্তক্ষেপে ভেঙে দেওয়া হয় এই পশুর হাট।
মহামারি করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ায় সর্বাত্বক লকডাউন দিয়েছে সরকার। সরকারের দেওয়া লকডাউনের বিধিনিষেধ অমান্য করে উপজেলার মহিমাগঞ্জে পশুর হাট বসে।
উক্ত হাটের ইজারাদার তাজুল ইসলামের বিরুদ্ধে পশুর হাট লাগালোর অভিযোগ উঠেছে। হাটে বিপুল সংখ্যক ক্রেতা বিক্রেতার সমাগম ঘটে। এতে করোনার সংক্রমন বেড়ে যাবার আশংকা থেকেই ও ক্রেতা বিক্রেতার মধ্যে স্বাস্থ্যবিধি না থাকায় সহকারী কমিশনার (ভূমি) নাজির হোসেনের নেতৃত্বে পশুর হাট ভেঙে দেওয়া হয়।
অপরদিকে, মঙ্গলবার উপজেলার নাকাই হাটে পশুর হাট বসে। অসংখ্য ক্রেতা ও বিক্রেতার আগমন ঘটায় ও হাটে স্বাস্থ্যবিধি না মানায় বিকাল ৫টার দিকে সহকারী কমিশনার (ভূমি) নাজির হোসেনে পশুর হাটটি ভেঙে দেন।