চকরিয়া সম্ভাবনাময় “সিটি কর্পোরেশন”

12

উসমান গণি
আইডি নং-৮৬২
চকরিয়া কক্সবাজার

আগামীর সম্ভাবনাময় চকরিয়ার পশ্চিমে মহেশখালী ও কুতুবদিয়ায় জাইকা কর্তৃক পরিচালনাধীন গভীর সমুদ্র বন্দর, কয়লা বিদ্যুৎ প্রকল্প ও এলএনজি গ্যাস ক্ষেত্র উত্তোলন চলমান কার্যক্রমে জাইকা প্রতিনিধি দলের পছন্দের আলোকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় জাইকা প্রতিনিধি চকরিয়া পৌরসভাকে আধুনিক মানের পৌরসভা করার জন্য সার্ভে কাজ প্রায় শেষ।
১৪.৪৩ বর্গ কিলোমিটারের প্রায় লক্ষ্যাধিক জনসংখ্যা নিয়ে চট্রগ্রাম- কক্সবাজার হাইওয়ে সড়কের উভয় পার্শ্বে প্রথম শ্রেনীর এই চকরিয়া পৌরসভাটির পূর্ব পার্শ্বে পার্বত্য লামা-আলীকদম, উত্তরে পেকুয়া উপজেলা, উত্তর পশ্চিমে চট্রগ্রামের বাঁশখালী উপজেলা, পশ্চিমে বাংলাদেশের সেই স্বর্ণালী দ্বীপ খ্যাত মহেশখালী- কুতুবদিয়া এবং দক্ষিনে বিশ্বের দীর্ঘতম সমুদ্র সৈকত নিয়ে পর্যটন নগরী কক্সবাজার। পার্শ্ববর্তী সকল জেলা ও উপজেলা চকরিয়া পৌরসভার সংযোগস্থল হওয়ায় ব্যবসা, শিক্ষা, চিকিৎসা, বিনোদন ইত্যাদি কাজে বিভিন্ন পেশার হাজার হাজার লোক চকরিয়া পৌরসভায় আসা-যাওয়া ও সকল এলাকার ব্যবসয়ীক কেন্দ্রবিন্দু হওয়ায় জনবহুল পৌরসভায় রূপান্তরিত হয়। তাছাড়া’ বর্তমানে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর একান্ত আস্তাভাজন মেয়র “আলমগীর চৌধুরী” তার মেধা ও নিরলস পরিশ্রম দিয়ে চকরিয়া পৌরসভার সমস্ত এলাকায় আরসিসি রাস্তা, ড্রেন, ব্রীজ কালভার্ট, সড়ক বাতি, কিচেন মার্কেট, উন্নতমানের কাঁচা বাজার, আধুনিকমানের বাস টার্মিনালে রূপান্তর ইত্যাদি কার্যক্রমে চকরিয়াবাসীর হৃদয়ে স্থান করে নিয়েছেন। চকরিয়াবাসীর বিশ্বাস’ মেয়র আলমগীর চৌধুরী আগামীতে মেয়র নির্বাচিত হলে চকরিয়া পৌরসভা আধুনিক পৌরসভা এমনকি সিটি কর্পোরেশন বিনির্মানের প্রতিক্ষায় – চকরিয়া বাসী।