ল এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় কমিটির- সহ সংগঠনিক সম্পাদক: ইফাত মোহাম্মদ জিহান

17
ল এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (law Association of Bangladesh) আইনজীবী, শিক্ষানবিশ আইনজীবী,আইনের ছাত্রদের নিয়ে গঠিত বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সেচ্ছাসেবী,রাজনীতিমুক্ত আইনি সংগঠনটির ৪৫ সদস্য বিশিষ্ট আংশিক কমিটির অনুমোদন দিয়েছেন সংগঠনটির প্রতিষ্ঠাতা সদস্য মিজানুর রহমান এবং মরিয়াম জামিলা।
এখন পর্যন্ত সংগঠনটি ৩৭টা জেলা কমিটি, ২টা মহানগর কমিটি, ২০টিরও বেশি প্রাইভেট এবং পাবলিক ইউনিভার্সিটি কমিটি , বেশ কয়েকটি ল’ কলেজে কমিটি এবং দেশের বাইরে একটি কমিটি দেওয়ার মধ্যদিয়ে সংগঠনটি সম্মানের সাথে সাংগঠনিক কাজ করে যাচ্ছে।সংগঠনের সভাপতি শরিফুল হক তুমুলসহ ৪৫ সদস্যের আংশিক কমিটিতে বৃহত্তর লক্ষীপুরের কমলনগর উপজেলার কৃতি সন্তান ইফাত মোহাম্মদ জিহান সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক (কেন্দ্রীয় কমিটি) নির্বাচিত হয়েছেন।
(ইফাত মোহাম্মদ জিহান) নর্দান বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আইন বিষয়ে এলএলবি এবং এলএলএম করেছেন। তিনি এছাড়াও কাজ করছেন ঢাকা জজকোর্ট এে। তিনি অারো কাজ করেছেন সিটিজেন জার্নালিস্ট হিসেবে সার্টিফিকেট অর্জন করেন অনলাইন জার্নালিজম স্কুল বাংলাদেশ থেকে।
তিনি বলেন,”অসহায় মানুষের জন্য কিছু করার প্রবল ইচ্ছা থেকেই (ল’ এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ) এ শুরু থেকে নিজ প্রচেষ্টায় কাজ করে যাচ্ছি। ভালোবাসি প্রানের এই সংগঠনকে। এই সংগঠনের সকল সদস্যদের সাথে সমন্বয় করে আইনী সেবা পৌঁছে দিতে চাই রাজধানী থেকে প্রত্যন্ত অঞ্চলের অসহায় মানুষের দ্বারে-দ্বারে। ছিন্নমূল,এতিম,নির্যাতিত মানুষের জন্য আমার সর্বাত্মক সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে।
আমি আপনাদের সকলের দোয়া প্রার্থী। আপনারা দোয়া করবেন, যাতে সবজায়গায় ন্যায়বিচার ও আইনের শাসন প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে আমার একমাত্র লক্ষ্য ও উদ্দেশ্যের বাস্তবায়ন ঘটাতে পারি।
আমরা দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি, একদিন ল্যাবের হয়ে সর্বস্তরের মানুষকে আইন সম্বন্ধে সচেতন করতে সক্ষম হবো ইনশাআল্লাহ; সেদিন বাংলাদেশে কেউ আইনের উদ্ধে থাকবে না;কেউ আইন লঙ্ঘন করবে না;অপরাধীর পরিচয় হবে শুধুই অপরাধী হিসেবে।”
ইফাত মোহাম্মদ জিহান
লক্ষীপুর, চট্রগ্রাম বিভাগ
ID card number : 1005