বিশ্বের ধনীদের তালিকায় চতুর্থ স্থানে উঠে এলেন মুকেশ আম্বানি

4

বিশ্বের শীর্ষ ধনীর তালিকায় আরেক ধাপ ওপরে উঠে এলেন ভারতের মুকেশ আম্বানি। এবার ইউরোপের শীর্ষ ধনী ব্যবসায়ী ফ্রান্সের বার্নার্ড আর্নল্টকে পেছনে ফেলে তালিকায় চার নম্বরে উঠে এলেন তিনি। কয়েক সপ্তাহ আগেই মার্কিন ধনকুবের ওয়ারেন বাফেটকে পেছনে ফেলে বিশ্বের ধনীদের তালিকায় ৫ নম্বরে উঠে আসেন রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজের কর্ণধার।

ব্লুমবার্গ বিলিওনেয়ার সূচক জানাচ্ছে, চলতি বছরে মুকেশ আম্বানির শিল্পগোষ্ঠীর সংগৃহীত সম্পদের মোট পরিমাণ প্রায় ২ হাজার ২০০ কোটি ডলার। আর সম্পদের মোট পরিমাণ দাঁড়িয়েছে প্রায় ৮ হাজার ৬০ কোটি ডলার। করোনা পরিস্থিতির পর থেকে তেলের চাহিদা বাড়তে থাকায় মুকেশ আম্বানির প্রতিষ্ঠানের শেয়ার দর বাড়তে থাকে। মুকেশ আম্বানির প্রতিষ্ঠানে ফেসবুক, গুগলসহ বিভিন্ন সংস্থার বিনিয়োগও দ্রুত বাড়ছে। আর তাই সম্পদের আকারও বেড়ে যাচ্ছে।

ফোর্বস ‘রিয়েল টাইম বিলিয়নিয়ার্স লিস্ট’ অনুযায়ী জুলাই মাসের তৃতীয় সপ্তাহে মুকেশ আম্বানির সংস্থার মোট সম্পদের পরিমাণ ছিল সাড়ে ৭ হাজার কোটি মার্কিন ডলার। তার ওপরেই ছিলেন ফেসবুক-হোয়াটসঅ্যাপ কর্ণধার মার্ক জাকারবার্গ। তার সম্পত্তি ৮ হাজার ৯০০ কোটি ডলার। ১৮ হাজার ৫৮০ কোটি মার্কিন ডলার সম্পত্তির মালিকানা নিয়ে তালিকায় শীর্ষে ছিলেন অ্যামাজনের কর্ণধার জেফ বেজোস।

ঐ তালিকায় দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থানে ছিলেন যথাক্রমে বিল গেটস এবং ফ্রান্সের বার্নাড আর্নল্ট ও তার পরিবার। বিল গেটস ১১ হাজার ৩১০ কোটি ডলারের মালিক। আর্নল্ট পরিবারের সম্পত্তি ১১ হাজার ২০০ কোটি মার্কিন ডলারের। আর মুকেশ আম্বানির নিচে থাকা বার্কশায়ার হ্যাথওয়ের কর্ণধার ওয়ারেন বাফেটের সম্পত্তির পরিমাণ ছিল ৭ হাজার ২৭০ কোটি মার্কিন ডলার।

ব্লুমবার্গ বিলিওনেয়ার সূচক জানাচ্ছে, বিশ্বের ‘টেক জায়ান্ট’রা ক্রমশ ভারতের ডিজিটাল বাজারের প্রতি আকৃষ্ট হওয়ায় মুকেশ আম্বানিও ই-কমার্সের দিকে দৃষ্টি দিচ্ছেন। আর এতেই দ্রুত আরো ধনী হয়ে উঠছেন তিনি।