আগষ্ট মানেই শোক আর কষ্টের দীর্ঘশ্বাস -ডাঃ সঞ্জয়

15

মোঃ শিমুল পারভেজ
মোবাইল নং – ০১৭৮২৪৫৬৭৮৪

১৫ ই আগস্ট ইতিহাসের বেদনাবিধুর ও বিভীষিকাময় একটি দিন। ১৯৭৫ সালের এ দিনে সংঘটিত হয়েছিল ইতিহাসের এক কলঙ্কিত অধ্যায়। বাংলাদেশের স্থপতি, হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে নির্মমভাবে হত্যা করেছিল সেনাবাহিনীর কিছু উচ্ছৃঙ্খল ও বিপথগামী সদস্য। প্রতি বছর দিনটি আসে বাঙালির হৃদয়ে শোক আর কষ্টের দীর্ঘশ্বাস হয়ে। পুরো জাতি গভীর শোক ও শ্রদ্ধায় শ্রেষ্ঠ সন্তানকে স্মরণ করে। দিবসটি যথাযথ মর্যাদা ও ভাবগাম্ভীর্যে পালন করা হয়।

১৫ ই আগস্ট জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু প্রেমী, কেন্দ্রীয় যুবলীগ নেতা, শেড গ্রুপের চেয়াম্যান ডাঃ এস বি জয় (সঞ্জয়) গভীর শোক ও শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন।

দিবসটি উপলক্ষে জনক বঙ্গবন্ধুর স্মৃতিস্তম্ভে এবং বনানী কবরস্থানে -সকল শহীদের স্মরনে কেন্দ্রীয় আওয়ামী যুবলীগের পক্ষ থেকে পুষ্পার্ঘ অর্পন শেষ কেন্দ্রীয় যুবলীগের পার্টি আফিসে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অংশ নেন ডাঃ সঞ্জয়। অনুষ্ঠান শেষে উপস্থিত সকল শ্রেনী পেশার লোকজনের মধ্যে প্যাকেটজাত খাদ্য বিতরন করা হয়।

১৫ ই আগস্ট জাতীয় শোক দিবস নিয়ে ডাঃ সঞ্জয় প্রতিবেদকে বলেন, ১৫ ই আগস্ট শোক দিবস বাংলাদেশে পালিত একটি জাতীয় দিবস। প্রতিবছরের ১৫ই আগস্ট জাতীয় ও রাষ্ট্রীয়ভাবে এ দিবসটি শোকের সাথে পালন করা হচ্ছে। দিবসটি উপলক্ষে কালো পতাকা উত্তোলন ও বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা অর্ধনিমিত রাখা হয়েছে। ১৯৭৫ সালের ১৫ ই আগস্ট নৃশংস হামলায় প্রাণ হারিয়েছিলেন বাংলার রাখাল রাজা শেখ মুজিবুর রহমানসহ বঙ্গবন্ধুর সহধর্মিণী বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব, ছেলে শেখ কামাল, শেখ জামাল ও শেখ রাসেল, পুত্রবধূ সুলতানা কামাল, রোজী জামাল, ভাই শেখ নাসের, কর্নেল জামিল, বঙ্গবন্ধুর ভাগ্নে মুক্তিযোদ্ধা শেখ ফজলুল হক মনি, তার অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী আরজু মনি, ভগ্নিপতি আবদুর রব সেরনিয়াবাত, শহীদ সেরনিয়াবাত, শিশু বাবু, আরিফ রিন্টু খানসহ অনেকে। এ হামলা থেকে আমার নেত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানা ভাগ্যক্রমে বেঁচে যান। এ সময় আমার নেত্রীর জীবন সাথী বিশিষ্ট পরমাণু বিজ্ঞানী মরহুম ড. ওয়াজেদ মিয়ার সঙ্গে তৎকালীন সময়ে জার্মানিতে সন্তানসহ অবস্থান করেন শেখ হাসিনা। সেখানে বড় বোনের সঙ্গে শেখ রেহানাও ছিলেন।১৫ ই আগস্ট এর সেদিন ভোরে ধানমণ্ডির ৩২ নম্বরের বাসভবনে কাপুরুষোচিত হামলা চালায় ঘাতকরা।
কেন্দ্রীয় যুবলীগ নেতা ডাঃ সঞ্জয় আরে বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান একটি নাম, একটি ইতিহাস। আমি এই মহান নেতা ও তার পরিবারের যারা মৃত্যুবরণ করেছেন তাদের সকলের আত্নার মাগফেরাত কামনা করি এবং গভীর শ্রদ্ধা জানাই।

দিবসটি উপলক্ষে শেড গ্রুপের কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ গভীর শোক প্রকাশ করে দেশের বিভিন্ন স্থানে ৭৫ এ নিহতদের আত্নার মাগফিরত কামনায় বিশেষ দোয়া ও মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করে। যথাযথ মর্যাদা ও ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে দিবসটি পালন করা হচ্ছে।