রাতারাতি বদলে গেলেন জাভেদ মিয়াঁদাদ

2

দিন কয়েক আগের কথা। ইমরান খানকে নিয়ে অনেক বাজে মন্তব্য করেছিলেন জাভেদ মিয়াঁদাদ। ইমরান খান পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী। কিন্তু সেসব তোয়াক্কা করেননি তিনি। এমন কি দেশের প্রধানমন্ত্রীর প্রতি ন্যুনতম সম্মানটুকুও দেখাননি তিনি। সেই মিয়াঁদাদ দিন কয়েকের মধ্যেই তার সুর পাল্টে ফেললেন। তবে তার এই সুর পাল্টানোর পেছনে অনেকেই মনে করছেন তাঁর ভাতিজা ফয়সাল ইকবালকে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি) ঘরোয়া একটি দলের প্রধান কোচ হিসাবে নিযুক্ত করাই প্রধান কারণ।

চলতি মাসের ১১ আগস্ট নিজের ইউটিউব চ্যানেলে ইমরান খানকে নিয়ে বাজে মন্তব্য করেছিলেন জাভেদ মিয়াঁদাদ। ‘ইমরান খান পাকিস্তানের ক্রিকেট ধ্বংস করেছেন’, বলে মন্তব্য করেছিলেন মিয়াঁদাদ। এমনকি রাজনীতির মাঠেও ইমরানকে চ্যালেঞ্জ করার কথা জানিয়েছিলেন তিনি। ৬৩ বছর বয়সী প্রাক্তন অধিনায়ক এবার আচমকা ক্ষমা চেয়ে নিলেন দেশের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের কাছে। এক টিভি চ্যানেলে সাক্ষাত্কার দেওয়ার সময় তিনি ইমরান খানের কাছে ক্ষমা চেয়েছেন। তিনি বলেন, ‘কাউকে আঘাত করে থাকলে আমার বক্তব্যের জন্য আমি ক্ষমা চাইছি, বিশেষ করে প্রধানমন্ত্রীর কাছে। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম টেস্টে পাকিস্তানের পারফরমেন্সে আমি ক্ষুব্ধ ছিলাম। পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ও বিশ্বজুড়ে পাকিস্তানের সমর্থকদের প্রতি আমার পূর্ণ শ্রদ্ধা আছে।’

দীর্ঘদিন একসঙ্গে ক্রিকেট খেললেও ইমরানের সঙ্গে কোনো সময়ই ভাল সম্পর্ক ছিল না মিয়াঁদাদের। খেলোয়াড়ি জীবনেও তাদের দুজনের বিভিন্ন দ্বন্দ্ব খবরের শিরোনাম হয়েছে অনেকবার। তিনি বলেছেন, ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে প্রথম টেস্টে পাকিস্তানের পারফরম্যান্স দেখে আমি খুব রেগে গিয়েছিলাম। তাই যা নয় তাই বলে ফেলেছি। ।

এর আগে ইমরানকে তুলোধোনা করে নিজের ইউটিউব চ্যানেলে মিয়াঁদাদ বলেন, ‘তুমি আমার অধিনায়ক নও, আমি তোমার অধিনায়ক ছিলাম। আমি রাজনীতিতে এসে তোমার সঙ্গে কথা বলব। পারলে তখন কথা বলো। আমি সবসময় তোমাকে পরিচালনা করেছি, এখন আচরণ করছো সর্বশক্তিমানের মতো।”

‘মনে হয় যেন এই দেশে তুমিই একমাত্র বুদ্ধিমান ব্যক্তি। মনে হয় যেন আর কেউ অক্সফোর্ড, ক্যামব্রিজ বা অন্য কোনো বিশ্ববিদ্যালয়ে যায়নি। মানুষের কথা ভাবতে হবে। তুমি তো দেশের কথা ভাবো না।’

ওল্ড ট্রাফোর্ড টেস্টে জেতার মতো জায়গায় ছিল পাকিস্তান। কিন্তু শেষমেষ ২৭৭ রান তাড়া করে ইংল্যান্ড টেস্ট জিতে নিয়েছিল। আর তার পরই মিয়াঁদাদ আচমকা ইমরান খান ও পিসিবি কর্তাদের আক্রমণ করেন। তিনি বলেছিলেন, ইমরান খান পিসিবিতে অযোগ্য লোকদের দায়িত্ব দিয়েছেন। দেশের ক্রিকেটের এই দুরবস্থার জন্য ইমরান খান দায়ী। মিয়াঁদাদ আরও বলেন, এবার তিনি ইমরান খানকে শিক্ষা দেবেন। কিন্তু ভাইপো কোচ হতেই ১৮০ ডিগ্রি ঘুরে গেলেন মিয়াঁদাদ। তাঁর এই রংবদলের জন্য পাকিস্তানে হাসাহাসি শুরু হয়েছে।