বগুড়া ধুনটে ৫ বছর ধরে লোহার শিকলে বন্দি আব্দুল মান্নান

5

প্রতিনিধি; মোঃ শিপন শেখ, ধুনট বগুড়া।
আইডি, ১২২

ধুনটের মথুরাপুর ইউনিয়নের কাশিয়াহাটা গ্রামে মৃত রহমত আলীর ছেলে, আব্দুল মান্নান (৩৭) দীর্ঘ ৫ বছর ধরে শিকল বন্দি দুর্বিষহ জীবন অতিবাহিত করছে বলে জানা যায়। আব্দুল মান্নানের স্ত্রী রঞ্জনা খাতুন জানান,দীর্ঘ ৯ বছর ধরে তাঁর স্বামীর মাথায় নানা সমস্যা দেখা দেয়। উক্ত সমস্যা সমাধানের লক্ষে ইতোমধ্যে বিভিন্ন জায়গায় চিকিৎসা নেয়া হয়েছে।

যখন মানুসিক সমস্যা বেশি হয় তখন আঃ মান্নানকে পাবনা মানুসিক হাসপাতালে ভর্তি করাতে হয় , ডাক্তারদের পরিচর্যায় অবস্থার একটু উন্নতি ঘটে, কিন্তু বাড়ি ফিরলে আবার বাড়ে। স্ত্রীর ভাষ্যমতে আব্দুল মান্নানকে দীর্ঘদিন চিকিৎসা নিতে হবে। কিন্তু আর্থিক সংকটের কারনে সুচিকিৎসা না পেয়ে মৃত্যুর দিকে ধাপেধাপে এগিয়ে যাচ্ছে মানুসিক ভারসাম্যহীন আব্দুল মান্নান।

আব্দুল মান্নানের শিকল বন্দি জীবন প্রসঙ্গে প্রশ্ন করলে স্ত্রী কাঁন্না বিজড়িত কন্ঠে বলেন, আমাদের পরিবারের সদস্য ৫ জন, যিনি আয় করতেন তিনি আজ মানুসিক রোগী। অপর দিকে স্বামীর মানুসিক সমস্যা বৃদ্ধি পেলে ঘরের সব কিছু ভেঙ্গে ফেলে এবং কাউকেই চিনতে পারেনা। তাই এক পর্যায়ে বাধ্য হয়ে ৫ বছর ধরে শিকলে বেঁধে রেখেছি। আমরাও চাই তিনি সুস্থ্য হয়ে আগের মত পরিবারের মাঝে ফিরে আসুক। কিন্তু নানা প্রতিকুলতার কারনে তা আর হয়ে উঠছেনা, তাই জীবন বড্ড কষ্টে চলছে।
উলিপুর সরকারি প্রাইমারী স্কুলের প্রধান শিক্ষক আতিকুর রহমান খোকন বলেন; আব্দুল মান্নানের শারীরিক ও সাংসারিক অবস্থা বড়ুই করুণ। ইতোমধ্যে আমি ব্যক্তিগত ভাবে যতদূর পেরেছি সহযোগীতা করেছি। তবে এটা সাময়িক সমাধান হলেও আব্দুল মান্নানের জন্য স্থায়ী আর্থিক সহায়তা দরকার বলে মনে করি। তাই হৃদয়বান মানুষের সহযোগীতা পেলে বেঁচে যাবে আব্দুল মান্নানের পরিবার।