চলনবিলের আলো ফ্রি টেলিমেডিসিনে দু’সপ্তাহে ৫৩৫ জন সেবা গ্রহীতা

8
এমএএম,আইডি নং-৮১৩ নাগরপুর (টাংগাইল)প্রতিনিধিঃ
মহামারী করোনা ভাইরাস প্রতিরোধের অংশ হিসাবে বহুল প্রচারিত ও পাঠকপ্রিয় সংবাদপত্র “চলনবিলের আলো’র উদ্যোগে ও মুকতাদির হোমিও চিকিৎসা কেন্দ্রের সার্বিক সহযোগিতায় মাসব্যাপী ফ্রি টেলিমেডিসিন সেবা কার্যক্রম গত ১২ আগষ্ট আনুষ্ঠানিক ভাবে সেবা কার্যক্রম শুভ উদ্বোধন করা হয়। আজ ২৫ আগষ্ট ফ্রি টেলিমেডিসিন সেবার দু’সপ্তাহ। ইতিমধ্যে এ সেবায় অনেক সাড়াজাগিয়ে ৫৩৫ জন বিভিন্ন রোগ ও সমস্যায় সেবা গ্রহন করেছেন।
ফ্রি টেলিমেডিসিন সেবা পেয়ে খুশি ভ্যান চালক মোজাম্মেল বলেন, বিনা ভিজিটে ঘরে থেকে স্বাস্থ্য বিষয়ক পরামর্শ পেয়ে আমি উপকৃত হয়েছি। আমি চলনবিলের আলো পরিবারকে ধন্যবাদ জানাই করোনাকালিন সময়ে ফ্রি চিকিৎসার আয়োজন করায় জন্য।
মাসব্যাপী ফ্রি টেলিমেডিসিন সেবা কার্যক্রমের সংবাদ জানতে পেরে নাগরপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জননেতা মোঃ হুমায়ুন কবীর (ভিপি হুমায়ুন) বলেন, আমি শুরুতেই নাগরপুর উপজেলা পরিষদের পক্ষ থেকে চলনবিলের আলো পরিবারকে ধন্যবাদ সহ শুভেচ্ছা জানাই ও প্রসংসা করছি। বর্তমান বাংলাদেশ সহ সারাবিশ্ব মহামারী করোনা ভাইরাসের জন্য অচল হয়ে পড়েছে ঠিক এই সময় ফ্রি চিকিৎসা সেবা কার্যক্রম পরিচালনা করছেন চলনবিলের আলো পরিবার। আমি মনে করি এই উদ্যোগ একটা মহান কাজ। তিনি আরো বলেন, করোনা প্রতিরোধে ও স্বাস্থ্য সুরক্ষার জন্য টেলিমেডিসিন সেবা অনেক বেশী প্রয়োজন ছিল। চলবিলের আলো পরিবার এই টেলিমেডিসিন সেবা কার্যক্রম বাস্তবায়ন করে আমাদের দেখালেন আশা করি দেশের জনগন ঘরে বসে অভিজ্ঞ চিকিৎসকের মাধ্যমে সুন্দর সেবা পাবেন।
মাসব্যাপী টেলিমেডিসিন সেবা কার্যক্রমের পরিচালক ডা.এম.এ.মান্নান বলেন, চলনবিলের আলো পরিবারের আয়োজনে মাসব্যাপী ফ্রি টেলিমেডিসিন সেবা কার্যক্রমের একজন পরিচালক ও চিকিৎসক হতে পেয়ে নিজেকে সৌভাগ্য মনে করছি. কারন মহামারী সময়ে এই চিকিৎসা সেবা হচ্ছে সবচেয়ে মহৎ কাজ ও ইবাদত। আমি সহ আমরা সাতজন রেজিস্টার্ড ডাক্তার ২৪ ঘন্টা চিকিৎসা সেবায় নিয়োজিত থেকে সেবা দিয়ে আসছি। আমাদের কাছে নিয়মিত দেশ ও প্রবাসের বিভিন্ন জায়গা থেকে ফোন আসছে চিকিৎসা বিষয়ক পরামর্শের জন্য আমরা নিরলস ভাবে চিকিৎসা বিষয়ক পরামর্শ দিয়ে আসছি। আমরা এ পর্যন্ত ৫৩৫ জন রোগীকে চিকিৎসা সেবা দিয়েছি।
আমাদের ফ্রি টেলিমেডিসিন সেবা চলবে ১২ সেপ্টেম্বর রাত ১০ টা পর্যন্ত।