চাঞ্চল্যকর হত্যা মামলার রহস্য উদঘাটন ও আন্তঃজেলা ডাকাত চক্রের ০৫ জন গ্রেফতার

4
মোঃ আরিফুল ইসলাম খান শাহীন আইডি নং ১০২৯ গত ০১/০৯/২০২১ তারিখ দুপুর ০১:৪০ ঘটিকায় বাসন থানাধীন বারবৈকা মধ্যপাড়া সাকিনস্থ জনৈক লুৎফর এর বাড়ীর সামনে পাকা রাস্তার পুর্ব-পার্শ্বে জাকিরের বাগানের ভিতর পরিত্যক্ত জায়গায় গলায় গামছা প্যাঁচানো উপুর করা অবস্থায় অজ্ঞাত একজন পুরুষের মৃতদেহ পাওয়া যায়।
বাসন থানা পুলিশ উক্ত মৃতদেহের সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করিয়া ময়না তদন্তের জন্য শহীদ তাজ উদ্দিন মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করে। যার প্রেক্ষিতে বাসন থানা পুলিশ বাদী হয়ে মামলা নং-০২ তারিখঃ০২/০৯/২০২১, ধারা-৩০২/২০১/৩৪ পেনাল কোডে মামলা রুজু হয়। ঘটনার পরেরদিন ভিক্টিমের স্ত্রী ফাতেমা আক্তার(২৬) এ/পিঃবেগমপুর(ফুয়াং গেট), জয়দেবপুর, গাজীপুর লাশের পরিচয় সনাক্ত করে। তার পরিচয় ও NID অনুযায়ী জানা যায় যে, ভিকটিমের নাম ও ঠিকানা মোঃ সেলিম সরদার(৩৩), পিতা মোঃ শাহ জামাল সরদার, গ্রামঃ পশ্চিম উদয়নগর,ডাকঘরঃ চিলমারী, দৌলতপুর, কুষ্টিয়া এ/পিঃবেগমপুর(ফুয়াং গেট),জয়দেবপুর,গাজীপুর । ফাতেমা আক্তার জানায় যে তার স্বামী সেলিম গত ৩১/০৮/২০২১ তারিখে নিজের মালিকানাধীন পিক আপ নিয়ে বাসা থেকে বের হয়ে আর ফিরে আসেনি।তার সাথে মোবাইলে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেও সক্ষম হয়নি।
মামলা রুজুর এবং ভিক্টিমের পরিচয় জানার পরে গত ০৪/০৯/২০২১ তারিখ তথ্য-প্রযুক্তির সহায়তায় বাসন থানা ও সদর থানা পুলিশের যৌথ অভিযানে গাজীপুর ও হবিগঞ্জে জেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযানে চালিয়ে ০১) মোঃ মারুফ হহোসেন(৩০), পিতাঃ মোঃ আবদুল বাসেদ, সাংঃ দৌলতপুর, থানাঃ বাহুবল, জেলাঃ হবিগঞ্জ। বর্তমানঃ রিপনের বাড়ীর ভাড়াটিয়া, রাজারবাজার, শ্রীপুর, গাজীপুর। ০২) এনামুল(২২),পিতাঃ মোঃ হারেস আলী, সাং সানন্দাখীলা, থানাঃ ধোবাউড়া, ময়মনসিংহ ।এ/পি মোঃ আলীর ভাড়াটিয়া, এরশাদনগর বস্তি, টঙ্গী পূর্ব, গাজীপুর । ০৩) মোঃ আমিনুল(২৪), মৃতঃ মোতালেব, সাং টিকারচর ,থানা+জেলাঃশেরপুর এ/পি জামালের বাড়ির ভাড়াটিয়া,তেলিপাড়া, বাসন, গাজীপুর। ০৪)মোঃ শামীম(২৪),পিতাঃ মোহাম্মদ রফিজ মন্ডল, সাং খড়রিয়া, থানাঃ গোপাল্পুর, জেলাঃটাঙ্গাইল। এ/পি মানুর বাড়ীর ভাড়াটিয়া, দিঘীরচালা মাজারের সাথে ,বাসন ,জিএমপি। ০৫) আবদুল আহাদ(৩৪), মৃতঃ রমিজ আলী, সাং চারিগাও, থানাঃ বাহুবল, জেলাঃ হবিগঞ্জ। বর্তমানঃ ঐ ।
প্রাথমিকভাবে ধৃত আসামীরা উক্ত হত্যাকান্ডসহ আরো পিক আপ ছিনতাইয়ে জড়িত থাকার ঘটনা স্বীকার করে। প্রাথমিকভাবে জানা যায় যে, গত ৩১/০৮/২০২১ তারিখ রাত আনুমানিক ১১:০০ ঘটিকার সময় ভোগরা মোড় থেকে শামীম ও মারুফ সেলিমের পিকআপ ১৩০০ টাকায় মাওনা যাওয়ার জন্য ভাড়া করে। বাসন থানাধীন শাহ আলম বাড়ী থেকে মিক্সার মেশিন নিবে বলে কৌশলে সেলিমকে আসামী মারুফ ও বোরহান সেখানে নিয়ে যায় এবং ঘটনাস্থলে আগে থেকেই ওতপেতে থাকা আমিনুল,এনামুল ও শামীম এর সহযোগীতায় সেলিমকে গলায় গামছা পেচিয়ে হত্যা করে। হত্যা শেষে লাশের হাত-পা বেধে ঘটনাস্থলে ফেলে যায় এবং মারুফ একা গাড়ি চালিয়ে রাজেন্দ্রপুর কাপাসিয়া হয়ে আশুগঞ্জে গিয়ে গাড়ীর জিপিএস খুলে ফেলে সহযোগী আহাদের কাছে গাড়ি হস্তান্তর করে।
গত ০৪/০৯/২০২১ তারিখে আশুগঞ্জ থেকে পুলিশ গাড়ীর জিপিএস এবং হবিগঞ্জের বিভিন্ন স্থান থেকে আসামী আহাদের দেখানো মতে গাজীপুর সদর থানার মামলা নং- ৪০(০২)২০২১, ধারা-৩৯২ ও ২৪(০৮)২০২১, ধারা-৩৯২ মামলা- এর ছিনতাই হওয়া পিকআপ সহ মোট ৭টি পিকআপ উদ্ধার করা হয়েছে।