করিমগঞ্জে পুলিশের জনসচেতনতামূলক প্রচারণায় মাদক থেকে ফিরে আসলেন রমজান

4
আইডি নংঃ ৯৯৬ মোঃ আরিফুল ইসলাম কিশোরগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি।
কিশোরগঞ্জের করিমগঞ্জে পুলিশের মসজিদ ভিত্তিক জনসচেতনতা মূলক প্রচারণায় উদ্বুদ্ধ হয়ে মাদক থেকে সুপথে ফিরলেন মোঃ রমজান (২৮) নামে একটা ব্যাক্তি।
রমজান করিমগঞ্জ পৌর এলাকার নয়াপাড়া গ্রামের মৃত আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে। বছর চারেক আগে তিনি মাদকের সাথে জড়িয়ে পড়লে। সে সময় তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন সময়ে করিমগঞ্জ থানায় মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের ১৯ (১) এর ৯ (ক) (খ) ধারায় ৮/২০১৬, ২১/২০১৭, ২৬/২০১৭, ২৩/২০১৭ ৪ টি মামলা হয়।
এক সময় নেশায় বুদ হয়ে থাকা রমজান পুলিশের প্রচারনায় উদ্বুদ্ধ হয়ে বর্তমানে মাদকমুক্ত জীবন যাপনের মাধ্যমে ফিরছেন আলোর পথে।
সম্প্রতি কোভিড-১৯ সংক্রমণ রোধ, মাদক, জুয়া, ইভটিজিং ও ডেঙ্গু জ্বর সম্পর্কে জনসচেতনতা বাড়াতে এবং সর্বস্তরের মানুষকে স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালন ও বাসাবাড়ির আঙিনাসহ আশপাশ পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য উদ্বুদ্ধ করতে মসজিদ ভিত্তিক প্রচারণা শুরু করে করিমগঞ্জ থানা পুলিশ।
এবিষয়ে করিমগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মমিনুল ইসলাম জানান, ঢাকা রেঞ্জের ডিআইজি হাবিবুর রহমান বিপিএম (বার), পিপিএম (বার) এর নির্দেশে কিশোরগঞ্জ জেলার পুলিশ সুপার মো. মাশরুকুর রহমান খালেদ বিপিএম (বার) এর দিক-নির্দেশনায় আমরা থানা এলাকার বিভিন্ন মসজিদে জনসচেতনতা মূলক প্রচারণা চালিয়ে আসছি।
এই প্রচারণায় উদ্বুদ্ধ হয়ে রমজান আমাদের সাথে যোগাযোগ করে সুপথে ফেরার প্রত্যয় ব্যক্ত করলে আমরা বিভিন্ন সময়ে তার পরিবার ও প্রতিবেশীর সাথে কাউন্সিলিং করি। এরই ধারাবাহিকতায় শুক্রবার (১৭ সেপ্টেম্বর) জুমআর নামাজের পূর্বে নয়াপাড়া জামে মসজিদে উপস্থিত মুসুল্লিগণের সামনে মাদকমুক্ত থাকার অঙ্গীকার করে সকলের দোয়া ও সহযোগিতা কামনা করে। পরে ইমাম মাওলানা মুস্তাকিম বিল্লাহ তাকে তওবা পড়ান।
তিনি আরও জানান, রমজানের মতো যারা মাদক থেকে সুপথে ফিরে আসতে চান তাদের সকলের জন্য করিমগঞ্জ থানা পুলিশ ও তার ব্যক্তিগত পক্ষ থেকে সর্বাত্মক সহযোগিতা অব্যহত থাকবে। প্রয়োজনে স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গদের সহযোগিতায় কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করা হবে।