বেসরকারি হাসপাতালে করোনা টেস্টের ফি কমানোর অনুরোধ স্বাস্থ্যের ডিজির

25

বেসরকারি হাসপাতালগুলোতে করোনা টেস্টে ফি কমানোর অনুরোধ করেছেন স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল বাসার মোহাম্মদ খুরশিদ আলম। বিশেষ করে বিদেশগামী যাত্রীদের জন্য ফি আরেকটু কমানোর জন্য বেসরকারি মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মালিকদের প্রতি এ অনুরোধ করেন তিনি। প্রসঙ্গত, বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে বাড়ি থেকে করোনার স্যাম্পল নেওয়ার ফি সাড়ে তিন হাজার টাকা।
রবিবার ( ২৯ নভেম্বর) করোনার দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবিলা এবং ভ্যাকসিন বিষয়ে আলোচনা সভা শীর্ষক এক অনুষ্ঠানে তিনি হাসপাতাল মালিকদের প্রতি এ অনুরোধ করেন। বাংলাদেশ প্রাইভেট মেডিক্যাল কলেজ অ্যাসোসিয়েশন ( বিপিএমসিএ) আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।
স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল বাসার মোহাম্মদ খুরশিদ আলম বলেন, করোনা টেস্ট করার ক্ষেত্রে বেসরকারি হাসপাতালগুলো যে সহযোগিতার হাত বাড়িয়েছে তা চালিয়ে দিতে হবে। সম্ভব হলে টেস্টের মূল্য আরও কিছু কমিয়ে দিন। আমি আপনাদেরকে অনুরোধ করবো, বিশেষ করে বিদেশগামী যাত্রী যারা আছেন, যারা দেশের জন্য টাকা রোজগার করে আনছেন, যাদের রেমিট্যান্সের পয়সায় আমরা চলছি তাদের আরেকটু যদি সুযোগ দেন আপনারা তাহলে আরেকটু ভালো হয়। বিষয়টি সদয়ভাবে বিবেচনা করার জন্য অনুরোধ রাখছি।
তিনি বলেন, আমরা সীমিত সম্পদ দিয়ে যেটুকু মোকাবিলা করতে পেরেছে সেটা সম্ভব হয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ নেতৃত্বের কারণে।
ভ্যাকসিন দেশে এলে সেটা কিভাবে, কাদেরকে, কখন দেওয়া হবে সে নিয়ে একটি বড় পরিকল্পনা হয়েছে বলেও জানিয়ে অধ্যাপক ডা. আবুল বাসার মোহাম্মদ খুরশিদ আলম বলেন, পৃথিবীতে যদি ভ্যাকসিন আবিষ্কার হয় তাহলে নিশ্চয়ই বাকিরাও পাবে। তবে সেটা হয়তো একসঙ্গে হবে না, ধাপে ধাপে পাবে। সে সময়টুকু সবাইকে ধৈর্য ধরতে হবে। কারণ একসঙ্গে সবাইকে ভ্যাকসিন দেবার মতো সক্ষমতা শুধু বাংলাদেশ নয়, পৃথিবীতে কোথাও নাই। কাজেই যাদেরকে আগে দেওয়া দরকার তাদেরকেই আগে দেওয়া হবে।
তিনি এই করোনাকালে চিকিৎসক,নার্সসহ অন্যান্য স্বাস্থ্যকর্মী যারা মারা গিয়েছেন তাদেরও স্মরণ করেন তিনি।