জনগণের করের টাকাই দেশের উন্নয়নের মূল চালিকা শক্তি : আইনমন্ত্রী

13

আয়কর প্রদানের মাধ্যমে রাজস্ব বাড়িয়ে দেশের উন্নয়নে সহযোগিতার আহ্বান আন জানিয়েছেন আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক। দেশের বিত্তবান ও সম্পদশালী মানুষ এবং ব্যবসায় ও শিল্প প্রতিষ্ঠানের মালিকদের আয়কর দিয়ে গরিব-দুঃখী ও অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান জানান তিনি। কারণ জনগণের করের টাকাই দেশের উন্নয়নের মূল চালিকা শক্তি, যা স্বাস্থ্য, শিক্ষা, কৃষি, যোগাযোগ ও পরিবহণসহ বিভিন্ন খাতে ব্যয় করা হয়। তিনি বলেন, জনগণ যত বেশি আয়কর দিবে, বাংলাদেশ তত বেশি এগিয়ে যাবে।

মন্ত্রী আজ রাজধানীর সেগুনবাগিচায় জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) এর সম্মেলন কক্ষে জাতীয় আয়কর দিবস-২০২১ উপলক্ষ্যে রূপকল্প-২০৪১ বাস্তবায়ন ও আগামীর বাংলাদেশ বিনির্মাণে আয়করের ভূমিকা শীর্ষক এক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, জনগণের নিকট হতে সংগৃহীত করের টাকা ব্যয়ের ব্যাপারে আমাদেরকে আরো বেশি দায়িত্বশীল হতে হবে। জনগণের করের টাকার যেন কোনো অপচয় বা অপব্যবহার  না হয় এবং করের টাকার যাতে সর্বোত্তম ব্যবহার হয় তা নিশ্চিত করতে হবে।

আনিসুল হক বলেন, রূপকল্প ২০৪১ হচ্ছে ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত উন্নত ও সমৃদ্ধ আগামীর বাংলাদেশ বিনির্মাণের পথ নকশা, যার মূল লক্ষ্য ২০৪১ সালের মধ্যে দারিদ্র্যের বিলুপ্তি ঘটিয়ে এবং উচ্চ আয়ের দেশের মর্যাদায় আসীন করে বাংলাদেশকে জাতির পিতার স্বপ্নের সোনার বাংলায় রূপান্তরিত করা। এই রূপকল্প বাস্তবায়নের অন্যতম অনুসঙ্গ হচ্ছে অভ্যন্তরীণ সম্পদ তথা সরকারি রাজস্ব সংগ্রহ জোরদারকরণ। সরকারের প্রেক্ষিত পরিকল্পনা-২০৪১ এর রাজস্ব অভীষ্ট হলো ২০৩১ ও ২০৪১ সালে সরকারি রাজস্বকে মোট দেশজ আয়ের যথাক্রমে ১৯.৫৫% ও ২৪.১৫% এ উন্নীত করা। এছাড়া ২০৪১ সালের মধ্যে মোট রাজস্বে প্রত্যক্ষ করের অবদানকে ৫০% এর ওপরে উন্নীতকরণ।

মন্ত্রী বলেন, সরকারের উন্নয়ন অভীষ্ট অর্জনের লক্ষ্যে প্রয়োজনীয় রাজস্ব জোগানে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড ক্রমবর্ধমান ও আশাব্যঞ্জক অবদান রেখে চলেছে। আয়কর বিভাগের আন্তরিক কর্মপ্রচেষ্টার মাধ্যমে জাতীয় রাজস্বে  প্রত্যক্ষ করের অবদান ক্রমান্বয়ে বৃদ্ধি পাচ্ছে। দেশে টিআইএনধারীর সংখ্যা এখন ৭০ লক্ষ অতিক্রম করেছে। জাতীয় রাজস্ব বোর্ড দেশের ব্যবসা ও বিনিয়োগবান্ধব পরিবেশ নিশ্চিতকরণের জন্য বিভিন্ন নীতি সহায়তা প্রদান করে যাচ্ছে। এছাড়া কর দাতাদের জন্য হয়রানিমুক্ত ও সহজ কর সেবা নিশ্চিত করার জন্য প্রধানমন্ত্রীর ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মানের অংশীদার হিসেবে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড ই-রিটার্ন, ই-টিডিএস সেবা ইত্যাদি চালু করেছে।

অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগের সিনিয়র সচিব ও জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের চেয়ারম্যান  আবু হেনা মোঃ রহমাতুল মুনিমের সভাপতিত্বে সেমিনারে বিশেষ অতিথি ছিলেন এফবিসিসিআই-এর সভাপতি মোঃ জসিম উদ্দিন, আলোচক হিসেবে ছিলেন এনবিআর- এর সদস্য মোঃ আলমগীর হোসেন, মোঃ মাসুদ সাদিক ও সামস উদ্দিন আহমেদ এবং বাংলাদেশ অর্থনীতি সমিতির সাধারণ সম্পাদক ড. জামাল উদ্দিন আহমেদ।